Monday, January 23, 2017

বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের উদ্যোগে শানে গাওছেপাক ও শানে জামিয়ে আওলিয়া (রঃ) সম্মেলন অনুষ্ঠিত

 

চট্রগ্রাম প্রতিনিধিঃ
বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের উদ্যোগে শানে গাওছেপাক ও শানে জামিয়ে আওলিয়া (রঃ) সম্মেলনে আল্লামা ইমাম হায়াত- তরিকত মজহাব নির্বিশেষে আওলিয়া কেরামের অনুসারীগন ঈমানের নির্ভেজাল ও পূর্ণাংগ পথে ঐক্যবদ্ধ না হলে দ্বীনের মূলধারা সুন্নীয়তের বিপর্যয় ও সর্ব বাতিলের আগ্রাসন অবশ্যম্ভাবী

বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন, বাংলাদেশ চট্টগ্রাম মহানগর শাখার উদ্যোগে মুসলিম ইনস্টিটিউট হলে আজ শানে গাওছেপাক ও শানে জামেয়া আওলিয়া (রঃ) শির্ষক বিরাট সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের আলোচ্য বিষয় ছিল দুনিয়াব্যাপী বাতিল জালিম অপশক্তির বিণাশী গ্রাস থেকে আত্মা ও জীবনের মুক্তি ও বিপন্ন দ্বীন মিল্লাতের সুরক্ষা এবং সত্য ও মানবতার সমাজ-রাষ্ট্র-বিশ্বব্যবস্থা গড়ে তোলার সাধনায় আওলিয়া কেরামের দিকদর্শন।

সম্মেলনে প্রধান মেহমান হিসেবে দোয়া মোনাজাত করেন তফসিরে মাশাহেদুল ঈমানের প্রণেতা ও পবিত্র বোখারী শরীফের অনুবাদক, ওস্তাজুল ওলামা, শায়খুল হাদিস, ইমামে আহলে সুন্নাত, পীরে হাক্কানী, ওলীয়ে রাব্বানী- হাফেজ আল্লামা সৈয়দ ছাইফুর রহমান নিজামী শাহ। প্রধান বক্তা ছিলেন বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন এর প্রতিষ্ঠাতা এবং আহলে সুন্নাতের রাজনৈতিক রূপরেখা খেলাফতে ইনসানিয়াত তথা সর্বজনীন মানবিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ও বিশ্বব্যবস্থার দিকদর্শন বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের প্রবর্তক- আল্লামা ইমাম হায়াত।

 






আল্লামা আরেফ সারতাজের সভাপতিত্ত্বে অনুষ্ঠিত এ সম্মেলনে বিশেষ মেহমান হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা আজিজুল হক শেরে বাংলা (রঃ) এর সাহেবজাদা আল্লামা আমিনুল হক সাহেব, ইমামে আহলে সুন্নাত আল্লামা আবেদ শাহ মোজাদ্দেদী (রঃ)  এর সাহেবজাদা পীর আল্লামা সৈয়দ জাহান শাহ, অধ্যাপক আল্লামা ডঃ আতাউর রহমান মিয়াজী (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), পীরে তরিকত আল্লামা খন্দকার গোলাম মাওলা নক্সেবন্দী (গভর্নর, ইসলামিক ফাউন্ডেশন), অধ্যাপক আল্লামা ডঃ সৈয়দ আব্দুল্লাহ আল-মারুফ (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), পীরে তরিকত আল্লামা মোশাররফ হোসেন হেলালী (ঢাকা), অধ্যাপক আল্লামা ডঃ সাইফুল ইসলাম খান (ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়), শায়খুল হাদিস মুফতী আল্লামা ডঃ আনোয়ার হোসাইন সাইফী ও অধ্যাপক আল্লামা ডঃ নুরুন্নবী (এশিয়ান ইউনিভার্সিটি, ঢাকা)। সহস্রাধিক বিশিষ্ট পীর, আলেম, শিক্ষাবিদ ও সুন্নী নেতৃবৃন্দ এ সম্মেলনে অংশগ্রহন করেন।

সম্মেলনের মূল বক্তব্যে ইমাম হায়াত ইসলামের আসল ধারা আহলে সুন্নাতের প্রকৃত রূপরেখা পূনঃরূদ্ধারের আবেদন জানিয়ে বলেন, মহামহিম পবিত্র আহলে বায়েত-মহামান্য খোলাফায়ে রাশেদীন-মকবুল সাহাবায়ে কেরাম-সত্যের ইমামবৃদ ও মহান আওলিয়া কেরামের চিরন্তন ধারায় গতিশীল থাকা তথা সব বাতিল থেকে মুক্ত থেকে আধ্যাত্মিক ও রাজনৈতিক সব দিকে ভাইবোন সবাইকে নিয়ে দ্বীনের পূর্ণাংগ অনুসরণ ব্যাতিরেকে সুন্নী দাবী অসার।

ইমাম হায়াত বলেন, ইসলামের ছদ্মবেশী বাতিল ফেরকা ওহাবিবাদ-শিয়াবাদ-সালাফিবাদ যেমন ঈমানের বিপরীত ও দ্বীন বিকৃতিকারী তেমনি নাস্তিক্য উদ্ভূত বস্তুবাদী মতবাদও ঈমান বিধ্বংসী এবং দ্বীন-মিল্লাত-মানবতার বিরুদ্ধে ধ্বংসাত্মক বিষয়। বাতিল ফেরকা ও বস্তুবাদী মতবাদের অনুসারী হয়েও এবং দ্বীনের মৌলিক দিক অস্বীকার করেও সুন্নী দাবীর মাধ্যমে  প্রকৃত ইসলাম তথা আহলে সুন্নাতের পরিচয় ও রূপরেখা বিপন্ন এবং বিলুপ্তির মূখে ঠেলে দেয়া হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন।



ইমাম হায়াত বলেন, শরিয়ত ও তরিকত সবকিছুর পূর্বশর্ত ঈমান তথা সব বাতেল থেকে মুক্ত থেকে হকে অটল থাকা তথা দয়াময় আল্লাহতাআলার উদ্দেশ্যে একমাত্র প্রাণাধিক প্রিয়নবীর হয়ে যাওয়া। তিনি বলেন, কোন প্রকার বাতিল জালিম অপশক্তির সমর্থন করে বা সহযোগী হয়ে কিম্বা দ্বীনের আধ্যাত্মিক বা রাজনৈতিক কোন দিক অস্বীকার করে আওলিয়া কেরামের অনুসারী বা মুমিন দাবী করা যায় না।

ইমাম হায়াত বলেন, ইসলামের আধ্যাত্মিক ও রাজনৈতিক দিক পরস্পর অবিচ্ছেদ্য ও   সব দিকের উৎস ঈমানের পবিত্র কলেমা এবং আওলিয়া কেরাম পবিত্র কলেমার ধারক হিসেবে মানব জীবনের মুক্তি সাধনায় উৎসর্গীকৃত। তিনি বলেন, ইসলামের আধ্যাত্মিক দিক ব্যতীত যেমন আত্মার মুক্তি অসম্ভব তেমনি রাজনৈতিক দিক ব্যতীত জীবনের বিকাশ ও বাতিল জালেম অপশক্তির গ্রাস থেকে জীবনের মুক্তিও অসম্ভব। ইসলামের আধ্যাত্মিক দিকের সাথে রাজনৈতিক দিক ব্যাখ্যা করে ইমাম হায়াত বলেন, দ্বীনিমূল্যাবোধ ভিত্তিক অসম্প্রাদায়িক সর্বজনীন মানবিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ও বিশ্বব্যবস্থা খেলাফতে ইনসানিয়াত ই ইসলামের মূলধারা আহলে সুন্নাতের একমাত্র রাজনৈতিক দিকদর্শন। তিনি বলেন, কোন একক ধর্ম ও মতবাদের নামে বা একক জাতি-গোত্র-ভাষা-শ্রেণী-লিঙ্গ-বর্ণ ভিত্তিক একক গোষ্ঠিবাদী অপরাজনীতি ও স্বৈরদস্যুতান্ত্রিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ইসলামের বিপরীত এবং মানবতা বিধ্বংসী।

 

ইমাম হায়াত বলেন, সর্ব বাতেল থেকে মুক্ত থেকে আল্লাহতাআলার হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রেমে উৎসর্গীকৃত হয়ে মিথ্যা ও জুলুমের বিরূদ্ধে আদর্শিক সংগ্রাম এবং দ্বীন-মিল্লাত-মানবতার মুক্তি সাধনাই আওলিয়া কেরামের উত্তরাধিকার, যার একমাত্র উপায় পবিত্র কলেমার আত্মিক রূপরেখা ঈমানীয়াত এবং দ্বীন ও জীবনের রাষ্ট্রীয় রূপরেখা খেলাফতে ইনসানিয়াত। প্রেমময় বরকতময় সালাতু সালামের মাধ্যমে সম্মেলন সুসম্পন্ন হয়।

শেয়ার করুন