Saturday, March 4, 2017

এবার গর্তে পড়ে প্রাণ গেল মালিকপক্ষের লোকের


সারাদেশঃ
পাথর তোলার সময় মালিকপক্ষের এক পাথর ব্যবসায়ী নিহত হয়েছে। কিছুদিন আগে সিলেটের কোম্পানিগঞ্জ উপজেলার শাহ আরেফিন টিলা কেটে অবৈধভাবে পাথর তুলতে গিয়ে গর্ত ধসে ছয় শ্রমিক নিহত হয়েছেন। এই ঘটনায় পুলিশ তিনজনকে গ্রেপ্তার করে। গত ২৩ জানুয়ারী শাহ আরেফিন টিলা কেটে অবৈধভাবে পাথর তুলতে গিয়ে গর্ত ধসে পাঁচজন শ্রমিক নিহত হন। এই ঘটনার প্রায় দুই সপ্তাহ পর ১১ ফেব্রুয়ারি একই জায়গায় ফের গর্ত ধসে আরেক শ্রমিক নিহত হয়। এই ঘটনাগুলো পুলিশ সূত্রে তদন্ত করে জানা যায়।

কোম্পানিগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আমিনুল ইসলাম বৃহস্পতিবার রাতের ধসের ঘটনায় বাদী হয়ে হত্যা মামলা
করেছেন। মামলার আসামি করা হয়েছে নিহত এয়াকুবের বাবা রজব আলী, আনজু মিয়া, আবদুল হান্নান সহ আরও ১৫ জনকে। রজব আলীসহ রাতে তিনজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতের ঘটনার খবর পেয়ে মোহাম্মদ আবুল নাইছ তাৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিযে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেন বলে জানান কোম্পানিগঞ্জের নতুন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ আবুল নাইছ। শাহ আরেফিন টিলার যাতায়াত দুটি বন্ধ করে দেওয়া হয় গত কাল থেকে। রাস্তা দিয়ে পাথরবাহী যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ করে দেয়া হয়। বৃহস্পতিবার রাতের ঘটনায় কোন সাধারন শ্রমিক নয়, গর্তে পড়ে মালিকপক্ষের লোক নিহত হয় বলে জানান কোম্পানিগঞ্জ পশ্চিম ইসলামপুর ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ জামাল উদ্দিন। এখন প্রশাসনিক নজরদারির প্রয়োজন হয়ে পড়েছে পাখর তোলার ক্ষেত্রে।

শেয়ার করুন