Sunday, March 5, 2017

সোনাগাজীর মধ্যম আহাম্মদপুরে গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগে মামলা, স্বামী ও শ্বশুর গ্রেফতার




বিশেষ প্রতিনিধি :
সোনাগাজী উপজেলার অামিরাবাদ ইউনিয়নের মধ্যম অাহম্মদপুর গ্রামের ৩নং ওয়ার্ডের বাতানিয়া বাড়ির গৃহবধু অায়েশা খাতুনকে (২৮) হত্যার অভিযোগে রোববার মামলা দায়ের করা হয়েছে। নিহতার মা রফিকেননেছা বাদি হয়ে নিহতার স্বামী মো. ফজলে আজিম প্রকাশ শামীম, শ্বশুর মো. ইলিয়াছ, দেবর মাইনুল ইসলাম রিফাত ও শাশুড়ি রোজিনা খাতুনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় এ মামলা দায়ের করেন। শনিবার রাতে স্বামী ও শ্বশুরকে গ্রেফতার করেছে সোনাগাজী মডেল থানার পুলিশ।

পুলিশ, এলাকাবাসী ও নিহতার পরিবার জানায়, তিন বছর পূর্বে উপজেলার আমিরাবাদ ইউনিয়নের মধ্যম আহম্মদপুর গ্রামের মো. ইলিয়াছের ছেলে চা দোকানী মো. ফজলে আজিম শামীমের সাথে মতিগঞ্জ ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুর গ্রামের মৃত তাজুল হোসেনের কন্যা আয়েশা খাতুনের বিয়ে হয়। তার দু’বছর বয়সী একটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

নিহতার পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেন, শনিবার বিকালে দেবর রিফাত পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করে আয়েশার লাশ ঘরের মাঝে আড়ার (বুতের) সাথে লাশ ঝুলিয়ে দেয়। পরে শ্বশুর এসে লাশ নামিয়ে ফেলে। শনিবার সন্ধ্যায় খবর পেয়ে সোনাগাজী মডেল থানার পুলিশ লাশ উদ্ধার করে রবিবার সকালে ময়না তদন্তের জন্য ফেনী সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে।ময়নাতদন্ত শেষে রবিবার বিকালে মতিগঞ্জ ইউনিয়নের রামচন্দ্রপুরে নিজ বাড়িতে লাশ দাফন করা হয়।

সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মো. হুমায়ুন কবির নিহতার স্বামী ও শ্বশুরকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গৃহবধুর মা রফিকেননেছা বাদি হয়ে ৪জনকে আসামি করে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ঘটনাটি রহস্যজনক। ময়না তদন্তের পর বুঝা যাবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা। এ ছাড়া যৌন হয়রানি হয়েছে কিনা সেটাও ময়না তদন্তে জানা যাবে।

শেয়ার করুন