Tuesday, April 25, 2017

ফেনীর লালপুল বাইপাস যেনো মৃত্যু ফাঁদ



বিশেষ প্রতিবেদন:
ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর লালপুল বাইপাস দিন দিন যেন পরিণত হয়ে উঠছে মৃত্যু ফাঁদে। জেলা শহরের যাতায়াত করতে গিয়ে ফেনী সদর, সোনাগাজী এবং ছাগলনাইয়া উপজেলা থেকে আসা পরিবহনকে পড়তে হয় সব চেয়ে বেশি ঝুঁকির মুখে। ফলে প্রায়ই দুর্ঘটনায় প্রাণ হারাচ্ছে মানুষ। এ জন্যে মহাসড়ক নির্মাণে পরিকল্পহীনতাকেই দায়ী করছেন সাধারণ মানুষ। স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি স্বীকার করে সমস্যা সমাধানে কর্তৃপক্ষের নজরে নিতে পদক্ষেপ নেয়া হবে বলে জানিয়েছে।

মহাসড়ক চার লেন করার পর ফেনী সদর উপজেলা, সোনাগাজী উপজেলা এবং ছাগলনাইয়া উপজেলার প্রায় ১২ লাখ মানুষের লালপুল বাইপাস দিয়ে জেলা শহরে প্রবেশ এবং বাহির হওয়া অনেকটা কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। জেলা সদরে প্রবেশের দক্ষিণাঞ্চলের কয়েক লাখ মানুষের একমাত্র এই লালপুলের প্রবেশ পথে রাখা হয়নি কোন ওভারপাস বা আন্ডারপাসের ব্যবস্থা।

ফলে একদিকে মহাসড়কের ভারি পরিবহনের বেপরোয়া গতি এবং অন্যদিকে জেলা শহরে প্রবেশ এবং বের হতে গিয়ে একটু অসতর্কতায় এখানে প্রায়ই দুর্ঘটনায় বাড়ছে হতাহতের ঘটনা। আর এখানকার বাইপাস দিয়ে অনিয়ন্ত্রিত পারাপারের কারণে দীর্ঘ যানজট লেগেই থাকে। এ জন্যে কর্তৃপক্ষের পরিকল্পনাহীনতাকে দায়ী করে এ সমস্যার সমাধান চায় সাধারণ মানুষ।

মহাসড়ক পুলিশের ফেনীর মহিপাল থানার পরিদর্শক এস.এম. জাহাঙ্গীর আলম মনে করেন, এই বাইপাস পরিকল্পিতভাবে চালু করতে পারলে  যানজটসহ দুর্ঘটনায় হতাহত শূন্যের কোঠায় নেমে আসবে। মহাসড়কের সাথে ফেনীর লালপুল দিয়ে শহরের যোগাযোগ নিরাপদ এবং শংকামুক্ত করতে জেলা প্রশাসক মোঃ আমীন উল আহসান জানালেন তার নেয়া পদক্ষেপের কথা।

মহাসড়ক পুলিশের দেয়া তথ্য মতে, ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর ২৭ কিলোমিটার অংশে ২০১৪ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত ৪৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় কয়েক’শ মানুষ আহতের পাশাপাশি নিহত হয়েছে ৪০ জন। যার বেশির ভাগই ঘটেছে এই বাইপাস অংশে।
সূত্র: আলোকিত সোনাগাজী

শেয়ার করুন