Friday, May 26, 2017

ফেনী সদর হাসপাতালে দালাল ও প্রমোসনদের দৌরাত্বের শিকার রোগীরা, শেষ পর্ব..


 ইউনুছ ভূঞাঁ সুজন, ফেনী প্রতিনিধি:
ফেনী সদর হাসপাতালে দালাল ও  প্রমোসনদের দৌরাত্বের শিকার হচ্ছে ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা সাধারন রোগীরা।

সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ফেনী সদর হাসপাতাল টি ২৫০ শয্য বিশিষ্ট্য হাসপাতাল হলেও রয়েছে নানাবিদ সমস্যা। জেলার প্রত্যন্ত এলাকা থেকে এ হাসপাতালে  গরিব হতদরিদ্র সহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ চিকিৎসা নিতে আসলেও তাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী চিকিৎসা সেবা নিতে পাচ্ছে না। হাসপাতালে অতেন্দ্র প্রহরীর মত প্রতিনিহত বিভিন্ন ভাবে ডাক্তারদের কে ব্যস্ত করে রাখেন বিভিন্ন ঔষুদ কোম্পানির  মেডিকেল রিপ্রেন্জটিব'রা এমন অভিযোগ  করেছেন ফেনী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা ভোক্তভোগী রোগীরা।  

চিকিৎসা নিতে আসা আয়ুব খান (৬৫)  জানান, সকাল ১১টার পর থেকে বসে এখন প্রায় ১২টা ৪৫ মিনিট কিন্তু আমি বৃদ্ধ মানুষ অসুস্থ শরীরিক সমস্যা নিয়ে বসে আছি এখনো ডাক্তার দেখাতে পারিনি।

জরিনা বেগম (২৯) অনেকখন যাবত আমরা অপেক্ষা করেও আমরা আমাদের প্রত্যাশানুযায়ী চিকিৎসা পাইনা। সরকারী হাসপাতাল আমরা অনেক আশা নিয়ে চিকিৎসা নিতে আসলেও পোয়াতে হয় অনেক বন্ঞনা।

এদিকে হাসপাতালের একাদিক বিভাগ ঘুরে দেখা যায় বিভিন্ন ঔষুদ কোম্পানি অফিসারদের ভীড়। ফেনী সদর হাসপাতালের নতুন বিলিং'র নিচ ত'লা মেডিসিন বিভাগে চিকিৎসা নিতে আসা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অধিকাংশ  রোগীরা উক্ত প্রতিবেদকে  জানান,  আমরা অনেকক্ষন লাইনে দাড়িয়ে থাকার পর ও অামরা ডাক্তারকে দেখাতে পারিনা।

 "বড় বড় ব্যাগ নিয়ে আর হাতের মধ্যে ডাইয়েরী নিয়ে ডাক্তারের সাথে কিজানি পরামর্শ করে অনেক ক্ষন বাহির হয়না যার ফলে আমাদেরকে লাইনে দাড়িয়ে থাকতে হয়"।

 এদিকে হাসপাতালের নানান সমস্যা ও বিভিন্ন ঔষুদ কোম্পানির লোকদের দৌরাত্বের কথা নিয়ে ফেনী সদর হাসপাতালের আর. এম. ও'র কাছে জানতে চাইলে অসীম কুমার শাহ বলেন, নিয়ম অনুযায়ী বিভিন্ন ঔষুদ কোম্পানির মেডিকেল প্রমোশনদের জন্য সাপ্তহের দুইদিন বরাদ্দ রয়েছে। এর বাহিরে তারা ফেনী সদর হাসপাতালে  দায়িত্বরত সকল ডাক্তারদের কে দায়িত্ব পালনে বাধা সৃষ্টি করলে আমরা হাসপাতাল থেকে প্রশাসনিক ভাবে পুলিশের সহায়তা তাদেরকে বের করে দিয় বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন