Tuesday, May 23, 2017

ফেনীতে যানজট নিরসনে মাঠে নামছে পৌরসভা



আরিফ আজম :
ফেনী শহরে যত্রতত্র সিএনজি অটোরিক্সা ও রিক্সা স্ট্যান্ডের ফলে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। আসন্ন রমজানে মানুষের ভোগান্তি কমাতে আগেভাগেই মাঠে নামছে পৌরসভা। নির্ধারিত স্ট্যান্ডের বাইরে গাড়ি না রাখতে মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ডেকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। আজ-কালের মধ্যে পরিস্থিতি পরিবর্তন না হলে ফেনী পৌরসভার পক্ষ থেকে অভিযান চালানো হবে বলে তাদের হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, শহরের ট্রাংক রোডের রাজ্জাক মেডিকেল হল, আইনজীবী মার্কেট, শহীদ মিনার, নবী হোটেল, বড় মসজিদ, মডেল হাই স্কুল, সেন্ট্রাল হাই স্কুল, খেজুর চত্বর সংলগ্ন, এসএসকে সড়কের জগন্নাথ বাড়ি, মিজান রোডের ফুড গার্ডেন, কলেজ রোডের শহীদ হোসেন উদ্দিন বিপনী বিতানের বিপরীতে, পোষ্ট অফিস, রেলগেইটে যত্রতত্র স্ট্যান্ড গড়ে তোলা হয়েছে। পৌরসভার নির্ধারিত ৪টি স্ট্যান্ড থাকলেও অবৈধভাবে এসব স্ট্যান্ড গড়ে উঠায় যানজট সৃষ্টি হচ্ছে। যানজট নিরসন ও অবৈধ স্ট্যান্ড সরিয়ে নিতে রবিবার গাড়ির মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে ফেনী পৌরসভায় গতকাল রবিবার দুপুরে একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র আশ্রাফুল আলম গীটার ও নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী ছাড়াও মালিক-শ্রমিকদের প্রতিনিধিগন বক্তব্য রাখেন। পৌরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়, এসব স্ট্যান্ড দুইদিনের মধ্যে সরিয়ে নিতে হবে। এক্ষেত্রে কুমিল্লা বাস স্ট্যান্ডের লতিফ টাওয়ারের সামনে, সোনাগাজী বাস স্ট্যান্ড, সদর হাসপাতাল মোড় ও জহিরিয়া মসজিদের সামনে স্ট্যান্ড করবে। তবে গাড়ী চলন্ত অবস্থায় ট্রাংক রোডে যাতায়াত করতে পারবে। এছাড়া রিক্সা রাস্তার ডান পাশ দিয়ে চলাচল করবে। পৌরসভার লাইসেন্সকৃত সাড়ে ৭ হাজার গাড়ির বাইরে লাইসেন্স বিহীন গাড়ী চলাচল না করার নির্দেশ দেয়া হয়। এ নির্দেশনা কার্যকর করতে মঙ্গলবার থেকে অভিযান চালানো হবে বলে সভায় জানানো হয়। নির্ধারিত সময়ে স্ট্যান্ড সরিয়ে না নিলে বুলডোজার দিয়ে গুড়িয়ে দেয়া, আটক করে থানায় হস্তান্তর সহ আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী জানান, শহর যানজট মুক্ত করতে নানা পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। নির্ধারিত স্ট্যান্ডের বাইরে যত্রতত্র স্ট্যান্ড করতে দেয়া হবে না। এজন্য পৌরসভার পক্ষ থেকে অভিযান চালানো হবে।

ফেনী পৌরসভার অপর প্যানেল মেয়র আশ্রাফুল আলম গীটার জানান, বাইরের কোনো রিকশাকে শহরে ঢুকতে দেওয়া হবে না। যানজট নিরসনে যেসব উদ্যোগ নেয়া হয়েছে তা বাস্তবায়ন হলে ক্রমেই শহরে যানজট কমে যাবে।
প্রসঙ্গত; ২০১৬ সালের রমজানে শহরে যানজট নিরসনে সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারীর নির্দেশে ছাত্রলীগের শতাধিক নেতাকর্মী ট্রাফিক পুলিশকে সহায়তা করে। এ ঘটনা বেশ প্রশংসিত হয়।

শেয়ার করুন