Sunday, May 28, 2017

সোনাগাজীতে যৌতুক ও স্বামীর নির্যাতনের ভয়ে সন্তান নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে লিপি


বিশেষ প্রতিনিধি:
ফেনীর সোনাগাজীতে যৌতুক লোভী স্বামীর যৌতুকের দাবী পুরন করতে না পারায় স্বামীর নিমর্ম নির্যাতনের শিকার লিপি নামের এক গৃহ বধু। স্বামীর অব্যাহত হুমকিতে শিশু সন্তান নিয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে এবং খেয়ে না খেয়ে জীবন অতিবাহিত করিতেছে। ভুক্তভোগী ও আদালতের মামলা সূত্রে জানা গেছে চরচান্দিয়া সওদাগর হাটের বাহার উদ্দিনের কন্যা আছমা আক্তার লিপির সাথে বিগত ২৮/২/১৩ইং তারিখে ১,৫০,০০০/- টাকা দেন মোহরে মুসলিম শরাশরিয়ত মোতাবেক বিবাহ হয়। একই উপজেলার পূর্ব তুলাতুলির মোশারফ কমান্ডারের পুরাতন বাড়ীর মৃত হাজী সামছুল হকের পুত্র গোলাম মোস্তফার সাথে। গোলাম মোস্তফা একজন যৌতুক লোভী লোক। যৌতুকের জন্য তাহার ১ম স্ত্রীকে তালাক দিয়ে ১ সন্তানের জননী আছমা আক্তার লিপিকে ২য় স্ত্রী হিসাবে গ্রহণ করে।

 বিবাহের কিছু দিন তাহাদের দাম্পত্য জীবন ভাল ছিল। এরপর লিপি জানতে পারে তাহার স্বামী মোস্তফা একজন মদ, গাজা ও ইয়াবা সেবী ও বিক্রেতা। এই নিয়ে লিপি তার স্বামীকে মদ, গাজা ও ইয়াবা সেবী ও বিক্রেতা থেকে ফিরিয়ে আনতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। লিপির স্বামী মোস্তফা লিপির পিতার বাড়ী থেকে ২,৫০,০০০/- টাকা যৌতুক এনে দিবার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এতে লিপির গরীব পিতার পক্ষে দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়ে দেয়। এতে তার উপর ক্ষিপ্ত হয়ে নিমর্ম নির্যাতন চালায়। নির্যাতনে অতিষ্ঠ হয়ে লিপি পালিয়ে ফেনী শহরে এসে শিশু সন্তানকে বুকে নিয়ে খেয়ে না খেয়ে জীবন অতিবাহিত করিতেছে।

লিপি ফেনী আদালতে যৌতুক নিরোধ আইনে মামলা দায়ের করে। এই দিকে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয়রা জানান মোস্তফা তাহার তালাক দেওয়া ১ম স্ত্রীকে নিয়ে পুনরায় সোনাগাজীতে অবস্থান করিতেছে। মোস্তফা তাহার ২য় স্ত্রী লিপিকে মামলার করার অপরাধে অব্যাহতভাবে হত্যার হুমকি দিচ্ছে। এই ধরনের নিমর্ম নির্যাতনে ঘটনায় এলাকার সাধারণ মানুষ ক্ষোভ প্রকাশ করিতেছে এবং মোস্তফার দৃষ্টান্ত মুলক বিচার দাবী করে।


শেয়ার করুন