Thursday, May 25, 2017

ফেনীর ছাগলনাইয়া, ফুলগাজী ও পরশুরামে বিদ্যুৎতের লোডশেডিং চরমে


টাইমস অব ফেনী ডেস্ক:
ফেনী জেলার ছাগলনাইয়া, ফুলগাজী ও পরশুরাম উপজেলায় বিদ্যুৎ লোডশেডিং ও প্রচন্ড গরমের কারণে জনজীবন চরম অতিষ্ঠ হয়ে উঠছে। একদিকে প্রচন্ড গরম অন্যদিকে বিদ্যুতের সমস্যা ফেনীবাসীর জীবন-যাত্রাকে স্থবির করে দিয়েছে। এরিমধ্য প্রচন্ড গরমে বিভিন্ন রোগের দেখা দিয়েছে। বিদ্যুতের সমস্যার কারণে স্কুল, কলেজ, মাদরাসার ছাত্র-ছাত্রী, কলকারখানা, অফিস সহ যাবতীয় কাজকর্মের দারুন ব্যাঘাত ঘটছে।

এছাড়া হাসপাতাল গুলোতে রােগীরা ও গরমে অতিষ্ঠ। সরেজমিনে গিয়ে  ছাগলনাইয়া, ফুলগাজী ও পরশুরাম পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের মাধ্যমে জানা যায়, বিদ্যুৎ সমস্যার নানা কারণ। ফেনী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির পরশুরাম সাব জোনাল অফিসের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (এজিএম) প্রকৌশলী মোঃ আমজাদ হোসাইন জানান, দেশের বিভিন্ন স্থানে বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র গুলো মেরামত করার কারণে এবং প্রচন্ড তাপদাহে বিদ্যুতের চাহিদা বেড়ে যাওয়ার কারণে বিদ্যুৎ সমস্যা বেশি দেখা দিচ্ছে। তিনি আরো বলেন, যেখানে একটা উপজেলার জন্য প্রয়োজন রয়েছে ৭ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ, সেখানে আমরা পাচ্ছি  দুই থেকে আড়াই মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

ফুলগাজী জোনাল অফিসের ডি,জি,এম মো. আবুল কাশেম জানান, প্রচন্ড গরমের কারণে বিদ্যুতের চাহিদা বেড়ে গেছে। এছাড়াও উৎপাদন কম হওয়ার কারণে বিদ্যুৎ সমস্যা চলছে। তবে কয়েকদিনের মধ্যে সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে। তিনি আরাে বলেন, ফুলগাজী উপজেলার জন্য প্রয়োজন রয়েছে ৮ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ, আমরা পাচ্ছি ৩ থেকে ৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ।

ফেনী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির ভারপ্রাপ্ত জেনারেল ম্যানেজার ও ছাগলনাইয়া জোনাল অফিসের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার (ডিজিএম) আবু বক্কর শিবলী জানান, আজকে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে আরো উন্নতি হবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। তিনিও অন্য উপজেলার মত জানান, ছাগলনাইয়া উপজেলায় দিনে ৮ মেগাওয়াট বিদ্যূতের চাহিদা থাকলেও সেখানে পাচ্ছি ৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ এবং রাতে ১২ মেগাওয়াট বিদ্যুতের প্রয়োজন থাকলেও সেখানে আছে ৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। 

অন্যদিকে বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ডের নির্বাহী পরিচালকের দপ্তর সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি নরসিংদীতে পিজিসিবি’র টাওয়ার ভেঙ্গে যাওয়ায় এবং পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে উক্ত এলাকার কতিপয় বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র রক্ষনাবেক্ষণ কাজের আওতায় থাকায় সারা দেশে বিশেষ করে রাজশাহী, রংপুর, যশোর, খুলনা ও বরিশাল এলাকায় বিদ্যুৎ ট্রান্সমিশনের /সরবরাহের ক্ষেত্রে সাময়িক ভাবে সংকট তৈরী হয়েছে। ফলে দেশের উক্ত স্থান সমূহের ব্যাপক পরিমানে লোডশেডিং হচ্ছে। এ অবস্থা আরো কয়েকদিন অব্যহত থাকতে পারে।

শেয়ার করুন