Saturday, June 17, 2017

মাহে রমজান উপলক্ষ্যে বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন, ফেনী জেলার দিলপুরে সালাতু সালাম মাহফিল ও ইফতার মজলিস


দাগনভূইয়া প্রতিনিধি:
মিথ্যা-অবিচারের কবল থেকে সত্য এবং মানবতার মুক্তি সাধনায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানিয়ে বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের প্রবর্তক আল্লামা ইমাম হায়াতের অনুমদক্রমে মাহে রমজান উপলক্ষে বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন, ফেনী জেলার দিলপুর শাখার উদ্যোগে সালাতু সালাম মাহফিল ও ইফতার মজলিস অনুষ্ঠিত হয়।

সর্বস্তরের জনসাধারণের অংশ গ্রহণে অনুষ্ঠিত এ সালাতু সালাম মাহফিল ও ইফতার মজলিসে সভাপতিত্ব করেন মাওলানা নেছার উদ্দিন। এতে প্রধান মেহমান হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আল্লামা গোলাম সরওয়ার। বিশেষ প্রধান মেহমান ছিলেন, মাওলানা ফখরুল ইসলাম, মাওলানা  মাওলানা হাসান আহমদ, মাওলানা আবু বক্কর ছিদ্দিক, মোশারফ হোসেন মাসুদ, শাহাদাত হোসেন, নুরুল আবছার, কাউছার হোসেন, আবুল কালাম আজাদ, আবদুল্লা আল মামুন, আবদুল্লা আল  রিমন, জহিরুল ইসলাম, তাহেরুল ইসলাম, এমরান হোসেন ও ইসমাঈল হোসেন।

আল্লামা ইমাম হায়াতের শিক্ষায় বক্তাগণ বলেন, রোজা ঈমানদারদের জন্য আত্মিক উন্নয়ন ও সাফল্য লাভ এবং বিপর্যয় থেকে রক্ষায় এক অপরিহার্য্য দ্বীনীস্তম্ভ ও জীবনের অবিচ্ছিন্ন অংশ, যার মূলে রয়েছে দয়াময় আল্লাহতাআলা ও তাঁর হাবীব সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের প্রেমের অভিযাত্রা ও নৈকট্য সাধনা এবং যার শর্ত হলো আত্মার ঈমানী শুদ্ধতা। তাঁরা বলেন, আত্মার ঈমানী শুদ্ধতা নির্ভর করে সকল প্রকার বাতেল মত পথ থেকে মুক্ত থাকার উপর এবং সব কিছুর উর্ধ্বে প্রাণাধিক প্রিয়নবীর প্রেমভিত্তিক হৃদয়ের উপর।

তাঁরা বলেন, আত্মার মূল, অস্তিত্বের উৎস মহান রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম থেকে কোনভাবে বিচ্ছিন্ন থাকলে রেসালাত কেন্দ্রীক না হয়ে বস্তুভিত্তিক হয়ে থাকলে আত্মা মৃত অন্ধকার ও নাপাক হয়ে যায়, যেখানে নামাজ রোজা বা কোন এবাদতই আর কাজে আসে না। তাঁরা বলেন, অপরদিকে দ্বীনের সাথে সম্পূর্ণ একাকার হয়ে দ্বীনের বিরুদ্ধে বাতেলের আগ্রাসন ও মিল্লাতের সমস্যা সংকটে একাত্ম হয়ে দ্বীনের আধ্যাত্মিক রাজনৈতিক সর্বদিকে পূর্ণ বিশ্বস্ত না হলে কেবল একটা দিক রোজা দ্বীনের সাথে প্রতারণা হয়ে দাড়ায়।

বক্তাগণ আরও বলেন, সারা দুনিয়ায় আজ ইসলামের ছদ্মনামে প্রতারক বাতেল ফেরকা ও ধর্মের নামে অধর্ম উগ্রবাদ এবং নাস্তিক্য উদ্ভূত বস্তবাদী মতবাদ তাওহীদ রেসালাত থেকে আত্মাকে বিচ্ছিন্ন করে মিথ্যা আঁধারে নিমজ্জিত করার চক্রান্ত করছে, জীবন ও দুনিয়ার সর্বজনীন মানবিক প্রাকৃতিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ও বিশ্বব্যবস্থা খেলাফতে ইনসানিয়াতের বিপরীতে মানবতাবিধ্বংসী একক গোষ্ঠিবাদী স্বৈর রাষ্ট্রব্যবস্থা ও বিশ্বব্যবস্থার মাধ্যমে সত্য ও জ্ঞানের প্রবাহ রূদ্ধ করে এবং জীবনের সকল অধিকার-স্বাধীনতা-নিরাপত্তা হরণ করে সমগ্র মানবতাকে দাসত্ত্ব শৃংখলে আবদ্ধ করে সর্বাত্মক ধ্বংসের অপচেষ্টা চলছে।

বক্তাগণ রোজার প্রকৃত আলোক চেতনায় সত্য ও মানবতার ধারায় নিজেদের জীবন ও সমাজ বিনির্মাণে মিথ্যা, অবিচার, জুলুম শোষণভিত্তিক বিরাজমান অমানবিক রাষ্ট্র ব্যবস্থার ও বিশ্ব ব্যবস্থার পরিবর্তন করে সত্য-সুবিচার-মানবতা-অধিকার ভিত্তিক সমাজ রাষ্ট্র বিশ্বব্যবস্থা তথা ইনসানিয়ত বা মানবিক রাষ্ট্র ব্যবস্থা গড়ে তোলার দৃঢ় অঙ্গীকার গ্রহণ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, আমরা যদি নিজেদের আত্মা ও জীবন থেকে বস্তুগত দাসত্ব উৎখাত করে রেসালত কেন্দ্রীক তাওহীদ ভিত্তিক জীবন চেতনার ধারক হয়ে সত্য ও মানবতার মুক্তির লক্ষে কাজ করে যেতে পারি, কেবল তাহলেই মাহে রমজানের শিক্ষা ও আদর্শের প্রকৃত বাস্তবায়ন সম্ভব।

এমতাবস্থায় রোজার সাথে সাথে আমাদেরকে রোজার আসল লক্ষ্য আত্মার উন্নয়নের শর্ত আত্মা ও জীবন সর্ববাতেলের আঁধার বিনাশ থেকে পবিত্র ও মুক্ত করে প্রিয়নবী কেন্দ্রীকতায় গড়ে তোলার অনুকুলে সমাজ ও রাষ্ট্রব্যবস্থা প্রতিষ্ঠায় এবং দ্বীন-মিল্লাত-মানবতার সংকটে নিজেদের ঈমানী দায়িত্ব পালনে রোজার শিক্ষায় ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

সমাবেশ শেষে সালাতু সালাম ও মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা নেছার উদ্দিন।

শেয়ার করুন