Tuesday, July 11, 2017

ফেনী-৩ আসনের সাংসদ রহিম উল্যার বিরুদ্ধে মাছ লুটের অভিযোগে ফেনীতে মানববন্ধন



বিশেষ প্রতিনিধিঃ
আজ মংগলবার সকাল ১১টায় ফেনীর শহীদ মিনারের সামনে ফেনী-৩ আসনের সাংসদ রহিম উল্যার বিরুদ্ধে মাছ লুটের অভিযোগে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে ফেনী-৩ আসনের সাংসদ রহিম উল্যার অত্যাচারের কবল থেকে আমিরাবাদ ্ইউনিয়নসহ সোনাগাজীর সাধারন মানুষের মুক্তির দাবি ও অভিলম্বে রহিম উল্লাহর শাস্তি দাবি করা হয়।

এর আগে ফেনী-৩ আসনের সাংসদ সদস্য এমপি রহিম উল্যার বিরুদ্ধে মৎস্য খামারের ১০ লাখ টাকার মাছ লুটের অভিযোগ করেছেন মহিউদ্দিন নামের এক মৎস্য চাষী। শনিবার বিকালে মহিউদ্দিন বাদী হয়ে সোনাগাজী থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযুক্ত এমপি রহিম উল্যা বিষয়টিকে পরিকল্পিত বলে দাবি করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, সোনাগাজী উপজেলার মুহরী প্রজেক্ট এলাকায় রহিম উল্যার মৎস্য খামারের সঙ্গে অভিযোগকারী মহিউদ্দিনের চৌধুরী ফিশারিজ নামে মাছের খামার রয়েছে। শুক্রবার রাত ২টায় এমপি রহিম উল্যার উপস্থিতিতে চৌধুরী ফিশারিজের তত্ত্বাবধায়ক শেখ রফিদ ও আক্তার হোসেনকে পিটিয়ে জেলে মোশারফ হোসেনকে দিয়ে খামারে চারটি পুকুরের প্রায় ২০০ মণ মাছ লুট করে নেয়। লুট করা মাছের বর্তমান বাজারমূল্য ১০ লাখ টাকা বলে উল্লেখ করা হয়। সংবাদ পেয়ে মহিউদ্দিন খামারে হাজির হলে তাকে হত্যার হুমকি দেন এমপি রহিম উল্যা।

এমপি রহিম উল্যা যুগান্তরকে জানান, চৌধুরী ফিশারিজের পাশ ঘেঁষে তার মালিকানাধীন মাছের খামার রয়েছে। চৌধুরী ফিশারিজের পুকুরের পাড় ধসে পড়ায় তার পুকুরের মাছ তাদের খামারে চলে যায়। চৌধুরী ফিশারিজের মালিক মহিউদ্দিনকে বারবার পুকুরপাড় মেরামতের জন্য বলা হলেও তারা কোনো উদ্যোগ নেয়নি। এখন উল্টো তার বিরুদ্ধে মাছ লুটের অভিযোগ তুলছেন।সোনাগাজী থানার ওসি হুমায়ন কবির অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

শেয়ার করুন