Monday, April 22, 2019

শ্রীলংকায় গির্জা এবং হোটেলে হামলা ও নৃশংস হত্যাকান্ডের নিন্দা ও প্রতিবাদে মানববন্ধন



খুনী জংগিবাদি সন্ত্রাসী উগ্রবাদি গোষ্ঠী কর্তৃক শ্রীলংকায় গির্জা এবং হোটেলে হামলায় শতাধিক মানুষকে নৃশংস মর্মান্তিক হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদে বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন ও বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লব, বাংলাদেশ এর উদ্যোগে ঢাকা জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে আজ সোমবার (২২ শে এপ্রিল) এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।
বিশ্ব সুন্নী আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের প্রবর্তক হজরত আল্লামা ইমাম হায়াত এর দিক নির্দেশনায় অনুষ্ঠিত এ মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন আল্লামা শেখ রায়হান রাহবার। বক্তব্য রাখেন আল্লামা আবু আবরার চিস্তি, সুফী আহমদ শাহ মোর্শেদ, আওয়াল কাদেরী, শেখ হানিফ, মাওলানা গোলাম ছাদেক, মাঈনুল বারী, এডভোকেট শাকের হোসেন, অধ্যাপক মারুফ উদ্দিন, এডভোকেট মোকাররম হোসেন, আশরাফুল আলম, মাঈনুদ্দিন টিটু, এডভোকেট শারমিন সুলতানা, এডভোকেট তানিয়া তানজিম, অধ্যাপিকা এমি নিশা।
বিশ্ব সুন্নী আন্দোলন ও বিশ্ব ইনসানিয়াত বিপ্লবের নেতৃবৃন্দ উগ্রবাদি গোষ্ঠী কর্তৃক শ্রীলংকায় গির্জা এবং হোটেলে হামলায় খ্রিষ্টান শতাধিক ভাইবোনের হত্যার  তিব্র নিন্দা প্রকাশ করেন। কোরআনুল করীমের সুরা মায়েদার ৩২তম আয়াত শরীফের উদ্বৃতি দিয়ে তাঁরা বলেন, যে একজন মানুষকে হত্যা করলো সে সমগ্র মানবমন্ডলীকে হত্যা করলো, যে একজন মানুষকে বাঁচালো সে সমগ্র মানবমন্ডলীকে বাঁচালো।
বক্তাগণ বলেন, যে কোন ধর্মের নামে অধর্ম উগ্রবাদ ও বস্তুবাদি উগ্রবাদি জাতীয়তাবাদি বর্ণবাদ মানুষকে প্রকৃত ধর্মের শত্রু ও মানবতার শত্রু অমানুষ বানায় এবং রাষ্ট্র ও ক্ষমতাকে জীবন ও মানবতা ধ্বংসের হাতিয়ার বানায়। তাঁরা বলেন, সালাফি-ওহাবি-মওদুদী সন্ত্রাসী মতবাদ ইসলাম নয় এবং এসব মতবাদের অনুসারি মুসলিম নয় বরং ইসলাম থেকে বিচ্যুত।
নেতৃবৃন্দ বলেন, বস্তুবাদি চেতনা ও গোষ্ঠীবাদি পাশবিক স্বৈর রাজনীতির সৃষ্ট হিংস্র পাশবিক অমানুষ এবং অমানবিক রাষ্ট্রব্যবস্থা ই সকল খুন-ধর্ষণ-সন্ত্রাস-পাশবতার মূল কারণ, অমানুষের সমাজে সব মানুষের জীবন ই হুমকির সম্মুখিন। তাঁরা খুনীদের অভিলম্বে গ্রেপ্তার করে শাস্তি দেয়ার দাবি জানান।
নেতৃবৃন্দ সব মানুষের জীবনের নিরাপত্তা ও অধিকার রক্ষায় বস্তুবাদি চেতনার একক গোষ্ঠীবাদি স্বৈরতামুক্ত সর্বজনীন মানবতার রাষ্ট্রব্যবস্থা ও বিশ্বব্যবস্থা গড়ে তোলার আহ্বান জানান।


শেয়ার করুন